তাহসান ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির শুভেচ্ছাদূত হিসেবে ২ বছরের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন। ব্যাপক জনপ্রিয় এই গায়ক ও অভিনেতা-কে নিয়ে বেশ প্রচারণাও চালায় ইভ্যালি। বেশ ধুমধাম করে ইভ্যালির সাথে চুক্তিবন্ধ হলেও গত মে মাসে গোপনেই ইভ্যালি থেকে সটকে পড়েন তাহসান।

তাহসান প্রায় ৪ মাস আগেই ইভ্যালির সঙ্গে চুক্তি বাতিল করেন। চলতি বছরের মার্চ মাসে তিনি প্রতিষ্ঠানটিতে যোগ দেন ‘ফেসব অব ইভ্যালি’ হিসেবে। এরপর ১৫ মে তাদের একটি বিশেষ ফেসবুক লাইভে অংশ নেন তিনি। যেখানে অংশ নিয়েছিলেন অভিনেত্রী-গায়িকা, মিথিলা।

মে মাসেই "কাউকে না জানানোর" শর্তে ইভ্যালি থেকে সটকে পড়েন তাহসান!

 

ক্রেতাদের পণ্য ডেলিভারি না দেওয়ার কারণে ইভ্যালির নামে বিতর্ক শুরু হয়। এজন্য মে মাসেই ইভ্যালির সঙ্গে চুক্তি বাতিল করেন এই তারকা। চুক্তির সময় সাইনিং এমাউন্ট হিসেবে মোটা অংকের টাকা পেলেও পরবর্তী দুই মাসে প্রতিষ্ঠানটি থেকে কোনো অর্থ পাননি তিনি।

এ বিষয়ে চুক্তি অনুযায়ী তাহসান বিস্তারিত  মন্তব্য করেননি। তবে ইভ্যালিতে তিনি আর নেই, এ কথা নিশ্চিত করেছেন তাহসান।

আরো পড়ুন: ইভ্যালির CEO রাসেল স্ত্রী-সহ র‍্যাবের কাছে গ্রেফতার।

আরো পড়ুন: মাশরাফির বিরুদ্ধে মামলা।দেওয়ার হুমকি দিচ্ছে ই-অরেঞ্জ ভুক্তভোগী গ্রাহকরা।

ইভ্যালির বিরুদ্ধে পণ্য ডেলিভারি না দেওয়া, গ্রাহকদের অর্থ আত্মসাৎ করা এবং সাপ্লায়ারদের অর্থ পরিশোধ না করার অভিযোগ দীর্ঘ দিনের। ৬ মাসের মধ্যে সকল সমস্যা সমাধানের অশ্বাস দিয়ে যাচ্ছিলেন কোম্পানির CEO রাসেল। আরিফ বাকের নামক ইভ্যালি গ্রাহকের মামলার পরিপেক্ষিতে বৃহস্পতিবার(১৬ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বাসা থেকে প্রতিষ্ঠানটির সিইও মোহাম্মদ রাসেল ও তার স্ত্রী প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব।

ইভ্যালি-তাহসান

সেলিব্রেটিদের ঢাক-ঢোল পিটিয়ে কোনো প্রতিষ্ঠানের সাথে যুক্ত হওয়ার পর নিশ্চুপভাবে কাউকে না জানিয়েই সেই কোম্পানি থেকে সটকে পড়ার অভিযোগ এই প্রথম নয়। সেলিব্রেটিদের এমন স্বার্থপর আচরনের ফলে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে তাদের অনুসারীরা। কাউকে না জানিয়ে এভাবে কোম্পানি থেকে সরিয়ে নেওয়া কতটুকু নৈতিক সেই প্রশ্ন থেকেই যায়।

ইভ্যালি-তাহসান

আপনার মন্তব্য জানাবেন

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন !
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন