সুই নিতে ভয় পান কিংবা অস্বস্তি বোধ করেন এমন মানুষের সংখ্যা কিন্তু কম নয়। ডায়াবেটিস আক্রান্ত রোগীদের দেহের শর্কারার (গ্লুকোজ) পরিমান জানতে দিনে কয়েকবার এই অভিজ্ঞতার সম্মুখিন হতে হয়। যা বেশ বেদনাদায়ক এবং খরচ তুলনামূলকভাবে বেশি। এর ফলে অনেক রোগী এটি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু গবেষকেরা আশা করছেন, কম খরচে এবং সুইয়ের ব্যবহার ছাড়াই লালার এনজাইম পরীক্ষার মাধ্যমে জানা যাবে রক্তের শর্করার পরিমাণ।

অস্ট্রেলিয়ার ইউনিভার্সিটি অব নিউক্যাসলের পদার্থবিজ্ঞানের অধ্যাপক ও গবেষণা দলের প্রধান পল দাস্তুর জানান, শর্করা শনাক্ত করতে পারে এমন লালার এনজাইম নিয়ে কাজ করছেন তারা।

সাধারণত দেহের শর্করার পরিমাণ জানতে ডায়াবেটিস আক্রান্তরা দিনের মাঝে কয়েকবার আঙুলে সুই ফুটিয়ে রক্ত নিয়ে টেস্টিং স্ট্রিপ ব্যবহার করেন। তাই তারা ব্যথামুক্ত ও স্বল্পখরচে দেহের শর্করা (গ্লুকোজ) পরীক্ষার জন্য এ গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন অধ্যাপক দাস্তুর ও তার দল।

অধ্যাপক দাস্তুর বলছিলেন, “লালার মাঝেও শর্করা থাকে। যা রক্তের শর্করাকে অনুসরণ করে ও যা প্রায় ১০০ গুণ কম ঘন। তাই পরীক্ষার ক্ষেত্রে খরচও কম।”

লালার মাধ্যমে হবে ব্যাথামুক্ত ডায়াবেটিস পরীক্ষা। Painless Salivary Diabetics Test

এ পরীক্ষায় ব্যবহার হবে একটি বায়োসেন্সর যা দেখতে অনেকটা ইলেক্টিক কলমের মত। যেখান থেকে খুব সহজে ও কম খরচে ফলাফল প্রিন্ট করা যাবে। দাস্তুর বলেন,” আমি মনে করে এই গবেষণা মেডিকেল ডিভাইস ও বায়োসেন্সর সম্পর্কে মানুষের ধারণা বদলে দেবে। কারণ আমরা এর মাধ্যমে খুব কম খরচেই পরীক্ষার করতে ও ফলাফল প্রিন্ট করতে পারবো।”

গবেষণার “ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের” পর ব্যাপক উৎপাদনের জন্য ৪.৭ মিলিয়ন ডলার তহবিল দিয়েছে অস্ট্রেলিয়ান সরকার।

ধারণা করা হচ্ছে, এই গবেষণা বায়োসেন্সর এর ব্যবহার বৃদ্ধি ও অর্গানিক ইলেক্ট্রনিক্স গবেষণায় নতুন মাত্রা যোগ করবে।

লালার মাধ্যমে হবে ব্যাথামুক্ত ডায়াবেটিস পরীক্ষা
লালার মাধ্যমে হবে ব্যাথামুক্ত ডায়াবেটিস পরীক্ষা

আরো পড়ুনঃ চাকরির খবর: উচ্চমধ্যমিক পাসে 56 পদে জনবল নিয়োগ করবে BIWTC – Huge Vacancy in BIWTC

 

 

2 মন্তব্য

আপনার মন্তব্য জানাবেন

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন !
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন