বুধবার, মে ১৮, ২০২২

বিদায় বেলায় আবেগী মেসি, দিয়ে গেলেন ফিরে আসার প্রতিশ্রুতি

নিজের বক্তব্য শেষ করার পর মেসি কেঁদে ফেলেন, বেশ খানিকটা সময় পুরো সংবাদ সম্মেলনের জায়গাটায় ছিল নীরবতা।

আর্জেন্টিনা ছেড়ে মাত্র ১৩ বছর বয়সে বার্সেলোনায় এসেছিলেন মেসি। এরপর ধীরে ধীরে ফুটবলের মহাতারকাদের একজন হয়ে ওঠেন। দীর্ঘ ২০ বছরের সম্পর্কের ছেদ ঘটলো সাংগঠনিক এবং আর্থিক জটিলতায়।

 

বার্সেলোনার নিজের শেষ সংবাদ সম্মেলন আজ হাজির হন লিওনেল মেসি। বার্সেলোনা ছাড়ার বিষয়টি অনেক ভক্ত সমর্থকেরই আগ্রহের কেন্দ্রে ছিল মেসির সাথে প্রতারণা হয়েছে কিনা? এ বিষয়টি পরিষ্কার করে মেসি বলেন, “আমরা সম্ভাব্য সবকিছুই করেছি, কিন্তু শেষ পর্যন্ত চেষ্টায় সফলতা এলো না। আপনি যখন নিয়মিত কথা না বলবেন, আপনার ব্যাপারে অনেক কিছুই বলা হবে। কিন্তু সেসবের সবকিছু সব সময় সত্যি হয় না। আমি শুধু আমার দিক থেকে কী হয়েছে সেটা বলতে পারি। আমি সব সময় সৎ থেকেছি, কাউকে ধোঁকা দিইনি। এটা আমার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ছিল। “

দীর্ঘ দিনের সঙ্গী বার্সেলোনা শহর এবং শহরের মানুষ প্রসঙ্গে বলেন, ” আমাদের যারা সাহায্য করেছেন তাদের সবাইকে ধন্যবাদ জানাই। আমি এই ক্লাবের মূল্যবোধের সাথে বড় হয়েছি। শিখেছি নিজেকে নম্রতা এবং শ্রদ্ধার সাথে সামলাতে।”

মেসিকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল যে বার্সা ছাড়ার পরে তিনি কোথায় যাবেন, তবে নিয়ে তিনি এখনও কোনো সিদ্ধান্ত নেননি বা স্বাক্ষর করেননি বলে জানান।
“আপাতত আমি কারো সাথে কিছুতেই রাজি হইনি।”

20210808 163703
বারবার আবেগাপ্লুত  হয়ে পড়েন মেসি।

ভক্তদের কাছ থেকে বিদায় নিতে না পারার কষ্ট থেকে বলেন, “আমি ভালোভাবে বিদায় জানাতে চেয়েছিলাম।আমি কখনো ভাবিনি এভাবে বিদায় নিতে হবে। এখানকার সবাইকে মনে থাকবে আমার।বিদায়ের সময় দর্শকদের পাইনি আমি এটা আমার জন্য কষ্টদায়ক।আমি পুরো ন্যু কাম্পে মানুষের কাছে থেকে বিদায় নিতে চেয়েছিলাম।”

বার্সার প্রতি নিজের সততা, পরিশ্রম এবং নিষ্ঠার পুরোটাই নিঙড়ে দিয়েছিলেন এই ফুটবল জাদুকর। একই সাথে বার্সায় আবারো ফিরে আসার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। তাঁর বক্তব্য –“আমি প্রথম দিন থেকে শেষ পর্যন্ত আমার সমস্ত কিছু দিয়েছি। একদিন আমি ফিরে আসার আশা প্রকাশ করছি। আমি আমার বাচ্চাদের প্রতিশ্রুতি দিয়েছি। আমি এই ক্লাবকে সেরা হতে সাহায্য করতে চাই।”

পুরো কনফারেন্স জুড়েই ছিল আবেগঘন এক পরিবেশ।আর হবেই না কেন? ফুটবল জাদুকরকে যে নিজের আপন নীড় ছেড়ে এভাবে চলে যেতে হবে সেটা কজনই আর ভেবেছিল।

মেসি বার্সেলোনার ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোলস্কোরার। ক্লাবের হয়ে ৬৭২ গোল করা এই আর্জেন্টাইন ১০টি লিগ শিরোপা, চারটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, সাতটি কোপা ডেল রে জিতেছেন।এছাড়া ছয়বার ব্যালন ডি অরও পান আর্জেন্টাইন এই ফুটবল জাদুকর।

Similar Articles

Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Advertismentspot_img

Instagram

Most Popular