বাবর, বিজয়, ভিরাট, কার অবস্থান এখন কোথায়?

বাবর বিজয় ভিরাট

২০০৮ সালে অনূর্ধ্ব -১৯ বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক কোহলির

ক্যারিয়ারটা বাবরের ক্যারিয়ারের চেয়ে লম্বা। বাবর অনূর্ধ্ব – ১৯ বিশ্বকাপ খেলেছিলেন ২০১২ সালে। সে বিশ্বকাপে বাবরকে ছাড়িয়ে গিয়েছিলেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যান এনামুল হক বিজয়। সমানসংখ্যক ম্যাচ খেলে বাবরের চেয়ে ৭৮ রান বেশি করে বিজয় হয়েছিলেন বিশ্বকাপের সেরা রানসংগ্রাহক।

৬ ম্যাচে ৬০.৮৩ গড়ে বিজয় করেছিলেন ৩৬৫ রান। তার স্ট্রাইকরেট ছিল ৮৫.০৮। ১২৮ রানের একটি ইনিংসও খেলেছিলেন তিনি। অন্যদিকে, রান তালিকায় দুইয়ে থাকা বাবরের সংগ্রহ ছিল ২৮৭ রান। তার গড় ছিল ৫৭.৪০ ও স্ট্রাইক রেট ছিল মাত্র ৬৫.৫২।

বাবর বিজয় ভিরাট

২০২০ টি-২০ বিশ্বকাপে নিজেদের দলের অধিনায়ক বাবর-ভিরাট। নিজে রান করে দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন এই দুই ব্যাটার। ভারত পাকিস্তান ম্যাচে উভয়ই অর্ধশতকের দেখা পেয়েছেন। রেজোয়ানের সাথে অসাধারণ ব্যাটিং করে বিশ্বকাপের মঞ্চে প্রথমবার ভারতের বিপক্ষে জয় ছিনিয়ে নিয়েছেন এই পাকিস্তানি অধিনায়ক। খেলেছেন ৫২ বলে ৬৮ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস।এছাড়াও ভিরাট কোহলী দলের জন্য করেছেন ৪৯ বলে ৫৭ রান। অন্যদিকে জাতীয় দলে থাকা তো দূরের কথা, দলের ভবিষ্যত পরিকল্পনায় ও নেই বিজয়। বর্তমানে খেলছেন NCL। সিলেটের বিপক্ষে ৪ দিনের চলমান ম্যাচে ১ম ইনিংসে ১৪৩ বলে করেছেন ৫৫ রান। কিন্তু দিত্বীয় ইনিংসে ৫ বল খেলে শূন্য রানেই সাজঘরে ফিরেছেন বিজয়।

বাবর বিজয় ভিরাট

বিজয় পরে সুযোগ পেয়েছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় দলেও। তবে ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে ইঞ্জুরি এবং তার পরের ফর্মহীনতার কারণে দীর্ঘদিন ধরে জাতীয় দলের বাইরে। শীঘ্রই হয়তো ফেরাও হবে না তার। তবে নিয়মিত ঘরোয়া লীগে খেলছেন তিনি। অন্যদিকে বাবর আজম, ভিরাট কোহলী এখন তাদের জাতীয় দলের অধিনায়ক।

আরো পড়ুন: হাতের ইঞ্জুরি ও একজন এনামুল হক বিজয়।

আপনার মন্তব্য জানাবেন

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন !
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন