গত আসরে অলিম্পিকের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়েছিল  ব্রাজিলের রিও ডি জেনিরোর মারাকানা স্টেডিয়ামে। প্রতিপক্ষ ছিল জার্মানি। ট্রাইবেকারের শেষ পেনাল্টি শটে নেইমারের গোলে জয় পায় তারা। ব্রাজিল জিতে নেয় তাদের প্রথম অলিম্পিক স্বর্ণ।

ইয়োকোহামার ইন্টারন্যাশনাল ফুটবল স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী দিনেই মুখোমুখি হয়েছে গতবারের দুই ফাইনালিস্ট ব্রাজিল এবং জার্মানি। বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৫টায় শুরু হয় ম্যাচটি। ব্রাজিল দল ৪-৪-২ ফরমেশনে খেললও আসর শুরুর আগে ব্রাজিলের কোচ আন্দ্রে জার্দিনকে দেখা গিয়েছিল  ৪-৩-৩ ফরমেশনে দলকে অনুশীলন করাতে। কিন্তু ৪-৪-২ ফরমশনে খুব দ্রুতই সাফল্য পায় ব্রাজিল। ম্যাচের ৭ম মিনিটেই প্রথম গোল করে দলকে এগিয়ে দেন রিচার্লিসন। আন্তনির বাড়ানো বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে জোরালো শট করেন রিচার্লিসন। কিন্তু গোলরক্ষক তা ঠেকালেও  ফের নেওয়া শট বল জালে প্রবেশ করান রিচা। ২২তম মিনিটে গুলের্মে আলামার ক্রস থেকে দারুণ এক হেডে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রিচা। তার ৮ মিনিট যেতেনাযেতেই করেন নিজের হ্যাটট্রিক পূরণ। ম্যাথিয়াস কুনহার কাছ থেকে বল পেয়ে এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে দারুণ এক কোণাকোণি শটে লক্ষ্যভেদ করেন তিনি। ফলে ম্যাচের প্রথম ৩০ মিনিটেই তিনটি গোল দেয় ব্রাজিল।

তখন মনে হচ্ছিল এক তরফাই হতে যাচ্ছে ম্যাচটি। তবে দ্বিতীয়ার্ধে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় জার্মানি। ২টি গোল আদায় করে নেয়। ৫৭তম মিনিটে প্রথম গোল পরিশোধ করে জার্মানি। ডি-বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া আমিরির ভলি ক্লিয়ার করতে ভুল করেন ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক আদেরবার সান্তোসের যার ফলে বল জালে জড়ায়। কিন্তু অঘটন ঘটে ৬৩তম মিনিটে। ম্যাক্সিমিলিয়ান আর্নল্ড লাল কার্ড দেখার পর বড় ধাক্কা খায় দলটি। ৮৪তম মিনিটে আবার ম্যাচে ফিরে জার্মানরা। ডেভিড রাউমের ক্রস থেকে দারুণ এক হেডে লক্ষ্যভেদ করেন আকে। শেষদিকে অলআউট খেলতে গিয়ে উল্টো আরও একটি গোল খায় জার্মানরা। এক্সট্রা টাইমের ৫ম মিনিটে গোলটি আসে পৌলিনহোর কাছ থেকে। ম্যাচে ব্রাজিলের চারটা গোল দিলেও সাতটা পর্যন্ত হওয়া সম্ভব ছিল।

ব্রাজিল এবং জার্মানি খেলছে ‘ডি’ গ্রুপে। এই গ্রুপের অন্য দুই দল হচ্ছে আইভরি কোস্ট এবং সৌদি আরব।আজ আরেকটি ম্যাচে ‘এ’ গ্রুপে মেক্সিকো মুখোমুখি হয় ফ্রান্সের। সেখানে ৪-১ গোলের সহজ জয়লাভ করে মেক্সিকো।

আর্জেন্টিনাও মাঠে নামে আজ। ২০০৮ সালের বেইজিং অলিম্পিকে মেসির হাত ধরে অলিম্পিকের স্বর্ণ জিতেছিল আর্জেন্টাইনরা। বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৪টায় অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হয় লা আলবেসেলেস্তারা। সাপোরোর সাপোরো ডোমে অনুষ্ঠিত হয় ম্যাচটি।  এবার নেহুয়েন পেরেজের নেতৃত্বে স্বর্ণ জয়ের মিশনে পাঠানো হয়েছে আর্জেন্টিনা দলকে। দলের কোচ হচ্ছেন ফার্নান্দো বাতিস্তা।
কিন্তু শুরু থেকেই বেশ ডমিনেন্ট ছিল অস্ট্রেলিয়া দল। খেলা শুরুর পর থেকেই মাঝমাঠের বেশ শক্ত দখল ছিল অস্ট্রেলিয়ার। ১৪তম মিনিটেই প্রথমবার আর্জেন্টেনিয়ান ডিফেন্স ভেদ করে তারা। ডিউকের ক্রস থেকে থেকে দারুণ এক শটে গোল আদায় করে নেন ওয়ালস।

প্রথম গোল হজমের পর কিছুটা আক্রমনাত্মক হয়ে খেলার চেষ্টা করে আর্জেন্টাইনরা। ১৭তম মিনিটে গোল করার মতো একটি সুযোগ তৈরি হলেও প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডার ব্লক করলে নষ্ট হয় আর্জেন্টিনার সেই সুযোগ। এরপর আরো বড় সুযোগ তৈরি হয় ৩৪তম মিনিটে। বার্কোর শট বারপোস্টে লেগে ফিরে না আসলে হয়তো ১-১ সমতায় ফিরতে পারতো দলটি। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে সবচেয়ে বড় ধাক্কা খায় আর্জেন্টিনা। মাত্র তিন মিনিটের ব্যবধানে দুটি হলুদ কার্ড দেখে মাঠ থেকে বহিষ্কার হন ফ্রান্সিস্কো ওর্তেগা।

১০ জনের দল নিয়েও দ্বিতীয়ার্ধে গোল শোধের প্রাণপণ চেষ্টা করেছিল আর্জেন্টিনা। কিন্তু অলআউট খেলতে গিয়ে উল্টো ৮০তম মিনিটে আরও একটি গোল হজম করে দলটি। ডিউকের আরও একটি পাস থেকে গোল করেন টিলিও। ফলে ২-০ গোলে হেরে যায় আর্জেন্টনা।

‘সি’ গ্রুপের অন্য ম্যাচে এদিন মিশর দলের সঙ্গে গোলশুণ্য ড্র করেছে স্পেন দল।
দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ০-১ গোলের জয় পায় স্বাগতিক জাপান। হুন্ডুরাসের বিপক্ষে ০-১ গোলের জয় তুলে নেয় রোমানিয়া। এছাড়াও কোরিয়ার বিপক্ষে জয় পায় নিউজিল্যান্ড। আইভরি কোষ্ট ২-১ গোলে জয় পায় সৌদি আরবের কাছে।20210722 230117

আপনার মন্তব্য জানাবেন

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন !
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন