মহামারি রোগ কোভিড-১৯ বাংলাদেশে প্রবেশের পর খুব দ্রুত ছড়িয়ে যেতে থাকে। বাংলাদেশে ৮ মার্চ ২০২০ এ প্রথম তিনটি নিশ্চিত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর রিপোর্ট পাওয়া যায়। এরপর খুব দ্রুত এই ভাইরাস বাংলাদেশের সকল জেলায় ছড়িয়ে পরে। আক্রান্তের সাথে সাথে বাড়তে থাকে মৃতের সংখ্যাও। এখন পর্যন্ত কোভিড-১৯ এ আক্রান্তের মোট সংখ্যা ১১,৭৮,১২৭ জন। এছাড়াও গত ২৪ ঘন্টায় ২৪৭ জন সহ মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৯,৫২১ জনে। ব্যবসা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ বন্ধ হয়ে গিয়েছে অনেক মানুষের জীবিকা। এই বছরের শুরুতে বাংলাদেশে আসা শুরু করেছে কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন। ১৮ বছরের উপরের সকলকে ভ্যাকসিন নেয়ার জন্য উদ্বুদ্ধ করছে সরকার। করোনা ও ভ্যাকসিন সংক্রান্ত সকল সহায়তা পাবেন করোনা ইনফো বাংলাদেশ থেকে।

কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন
কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন গ্রহণ

এখন পর্যন্ত অনেক ধরণের কোভিড-১৯  ভ্যাকসিন আবিষ্কার হয়ে বাজারে এসে গিয়েছে। এর মধ্যে কিছু ভ্যাকসিনের শতকরা কার্যকারিতার পরিমাণ হল :

  • অ্যাস্ট্রাজেনেকার ৭৬%
  • ফাইজার-৯৫%
  • স্পুটনিক-৯২%
  • সিনোফার্মের ভ্যাকসিন ৭৯%
  • মডার্নার টিকা ৯৪%
  • ভারত বায়োটেকের কোভ্যাক্সিন ৬৫%
  • সিনোভ্যাকের ভ্যাকসিন ৮৪%
  • জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকা ৬৭%
  • নোভাভ্যাক্স ৯০%
  • সেরাম ইনস্টিটিউটের কোভিশিল্ড ৭০%

উল্লেখিত শতাংশ কার্যকারিতার প্রমাণ মিলেছে বলে দাবি স্ব স্ব টিকা কর্তৃপক্ষের। তবে বহু চিকিৎসকের এই ব্যাপারে আপত্তিও রয়েছে। এছাড়াও আরো অনেক ভ্যাকসিনের এখনও পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছে।

১৯ জুলাই থেকে ১৮ বছর তধুর্দ্ধ্ব শিক্ষার্থীরা করোনা ভেক্সিন সুরক্ষা অ্যাপের মাধ্যমে দেওয়ার প্রক্রিয়া চালু করেছে সরকার।

এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে কোভিড-১৯ এর সর্বমোট ভ্যাকসিন এসেছে ২১ মিলিয়ন। বাংলাদেশের সকল জেলায় মোট টিকাদান করা হয়েছে ১২ মিলিয়ন। দুই ডোজের মাধ্যমে কোভিড-১৯ টিকা দান সম্পন্ন হয়। ৪ মিলিয়নের কিছু বেশি মানুষ সম্পূর্ণ ভ্যাকসিন কোর্স সম্পন্ন করেছে। ভ্যাকসিন প্রদানে বিভিন্ন শ্রেণির মানুষকে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। বাংলাদেশ সরকার খুব দ্রুতই (৭ আগস্ট) গণ ভ্যাকসিনের কার্যক্রম শুরু করতে পারে। কিভাবে জাতীয় পরিচয়পত্র ও পাসপোর্টের মাধ্যমে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন রেজিস্ট্রেশন করবেন তা জেনে নিন।

কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন
টিকা গ্রহণের জন্য সারিবদ্ধ লোকজন

“সুরক্ষা” অ্যাপ ডাউনলোড করে অথবা সুরক্ষা অফিসিয়াল সাইটে (https://surokkha.gov.bd/) প্রবেশের পর নিবন্ধনে যেতে হবে। এরপর  শ্রেণি নির্বাচন করতে হবে। এরপর জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর ,জন্ম তারিখ এবং সঠিক ক্যাপচা কোড প্রদান করে যাচাই করতে হবে। যাচাই সম্পন্ন হলে একটি নাম্বার প্রদান করতে হবে। সেই নাম্বারে ওটিপি কোড দিয়ে যাচাই করতে হবে। নিবন্ধন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে একটি নির্দিষ্ট দিনের ব্যবধানে ঐ মোবাইল নাম্বারে প্রথম ডোজের তারিখ সহ মেসেজ আসবে। এছাড়াও সাইটের মাধ্যমে নিবন্ধন স্ট্যাটাস জেনে নেওয়া যাবে।

বিদেশগামি প্রবাসীদের জন্য অর্থাৎ যাদের জাতীয় পরিচয়পত্র নাই তারা পাসপোর্টের মাধ্যমে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে। এই প্রক্রিয়ায় “আমি প্রবাসী” অথবা “বিএমইটি” অ্যাপ অথবা বিএমইটি অফিসিয়াল সাইটের মাধ্যমে বিএমইটি ডাটাব্যাঙ্কে নিবন্ধন করতে হবে। নিবন্ধন প্রক্রিয়া শেষ হলে মোবাইলে মেসেজের মাধ্যমে টিকা গ্রহনের দিন জানিয়ে দেওয়া হবে। নিজ থেকে করা সম্ভব না হলে ৪২ টি জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস এবং ৯ টি টিটিসির যেকোনো একটিতে গিয়ে ভ্যাকসিন নিবন্ধনের জন্য সহায়তা চাইতে পারে।

কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন
ভ্যাকসিন নিবন্ধন সংশ্লিষ্ট অ্যাপ

ভ্যাকসিনের দিন নির্ধারণ হলে “সুরক্ষা” অ্যাপের মাধ্যমে টিকা কার্ড সংগ্রহ করতে হবে। ভ্যাকসিন নেয়ার পর অবশ্যই টিকা সনদ সংগ্রহ করতে হবে। এবং সুরক্ষা অ্যাপের টিকা সনদ যাচাই অপশনের মাধ্যমে যে কেউ তার প্রাপ্ত টিকা সনদের বৈধতা যাচাই করতে পারবে।

গত ১২ জুলাই জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন নম্বর ও জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য দিয়ে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের জন্য নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়েছিল। ২ দিন ব্যাপী এই নিবন্ধন কার্যক্রম চলে এবং প্রায় সকল জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে ভ্যাকসিনের রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রমের আওতাভুক্ত করা হয়। জাতীয় পরিচয়পত্র বিহীন শিক্ষার্থীদের তাদের নিজ প্রতিষ্ঠানে তথ্য সরবরাহের মাধ্যমে ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জন্ম নিবন্ধন কার্ডের মাধ্যমেও কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের জন্য নিবন্ধিত করা হচ্ছে। এছাড়াও সকল মেডিকেল শিক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের হলসমুহে অবস্থিত শিক্ষার্থীদের করোনা ভ্যাকসিনের আওতায় আনতে সরকারের কার্যকরী পদক্ষেপ অত্যন্ত প্রশংসার দাবীদার।

করোনার এই সংকট্ময় পরিস্থিতিতে সরকারি টিকা গ্রহনের সুযোগ থেকে বঞ্চিত না হতে আজই রেজিস্ট্রেশন করুন।

আরো পড়ুনঃ বিদেশ থেকে আনা মোবাইল ফোন নিবন্ধন করতে হবে যেভাবে

হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা বাবুনগরী ইন্তেকাল করেছেন। আজ সন্ধ্যায় উনার জানাজা…

ই-অরেঞ্জের প্রাক্তন মালিক সোনিয়া এগারশো কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গ্রেফতার!! 

 

আপনার মন্তব্য জানাবেন

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন !
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন