শুক্রবার(২৭ আগস্ট) সকালে ওমানের মাস্কাট থেকে শতাধিক যাত্রী নিয়ে বিজি-০২২ ফ্লাইটটি নিয়ে ঢাকা আসার পথে ভারতের আকাশে থাকা অবস্থায় ক্যাপ্টেন নওশাদ কাইউম অসুস্থ বোধ করেন। সঙ্গে সঙ্গেই ক্যাপ্টেন তিনি কলকাতার এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের কাছে জরুরি অবতরণের অনুরোধ জানান এবং  কো-পাইলট সেকেন্ড অফিসারের কাছে বিমানটির নিয়ন্ত্রণ হস্তান্তর করেন। কলকাতার এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল বিমানটিকে তার নিকটস্থ নাগপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করার নির্দেশ দিলে, কো-পাইলট বিমানটিকে অবতরণ করান। বোয়িং ৭৩৭-৮০০
মডেলের বিমানটিতে ১২৪ জন যাত্রীর সবাইই নিরাপদে ছিলেন।

মৃত্যুর সাথে লড়ছেন কোমায় থাকা দুঃসাহসী পাইলট ক্যাপ্টেন নওশাদ।

পরবর্তীতে নাগপুরের কিংসওয়ে হাসপাতালে তাকে নিয়ে যাওয়া হলে জানা যায়, মধ্য আকাশে বড় ধরনের হার্ট অ্যাটাকের শিকার হয়েছেন বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের এই পাইলট। এখন হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা ইউনিটে (ICU) কোমায় আছেন তিনি।হাসপাতালের এজিএম রোশান ফুলবান্ধে আজ জানান,

“ক্যাপ্টেন নওশাদের অবস্থা গুরুতর… তিনি সম্পূর্ণ ভেন্টিলেশনের সহায়তায় বেঁচে আছেন… তাঁর মস্তিষ্কে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে… তিনি কোমায় আছেন।”

মৃত্যুর সাথে লড়ছেন কোমায় থাকা দুঃসাহসী পাইলট ক্যাপ্টেন নওশাদ।

এদিকে শুক্রবারই আরেকটি ফ্লাইটে করে আট সদস্যের একটি উদ্ধারকারী দল নাগপুরে যায়। মধ্যরাতের পর বিমানটিকে যাত্রীসহ ঢাকার বিমানবন্দরে নিয়ে আসা হয়।

মৃত্যুর সাথে লড়ছেন কোমায় থাকা দুঃসাহসী পাইলট ক্যাপ্টেন নওশাদ।

নওশাদের এমন দূর্ঘটনায় পরেও সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ে যাত্রীদের প্রাণ বাঁচানোর ঘটনা এই প্রথম নয়। এর আগে ২০১৬ সালের ২২ ডিসেম্বর ওমানের মাস্কাট থেকে চট্টগ্রামগামী ৭৩৭-৮০০ মডেলের আরেকটি বিমানে ১৪৯ জন যাত্রী নিয়ে উড্ডয়নকালে দূর্ঘটনার কবলে পড়েন নওশাদ। ফেটে যায় ফ্লাইটের চাকা। কিন্তু যাত্রীদের শান্ত করেন নওসাদ। ৬০ টনের উড়োজাহাজ ও ১৮ টন জ্বালানি নিয়ে চাকাবিহীন অবতরনের চেষ্টার পরিনতি মারাত্মক হতে পারে জানতেন নওশাদ। জরুরী অবতরনের উদ্দেশ্যে ৫ ঘন্টা বিমান চালিয়ে তিনি ও তার সেকেন্ড অফিসার মেহেদী হাসান ফ্লাইটটি ঢাকা নিয়ে আসেন। পরে অবিশ্বাস্যভাবে ঢাকায় তারা সফলভাবে ল্যান্ডিং করতে সক্ষম হন।

পরবর্তীতে এই বীরত্বের জন্য ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অফ এয়ারলাইন্স পাইলট অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষে হতে তাকে প্রশংসাপত্র দেওয়া হয়।

আরো পড়ুন: ফ্লাইট ৪৭২: হাইজ্যাক হওয়া জাপানি বিমানের ঢাকায় ৫ দিন!!

আপনার মন্তব্য জানাবেন

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন !
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন